ঢাকা   ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালিগঞ্জে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বাঁধায় কার্যক্রম বন্ধ, সংবাদ সংগ্রহের সময় সাংবাদিক লাঞ্ছিত

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : মঙ্গলবার, মার্চ ১৯, ২০২৪
  • 25 শেয়ার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ

সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জের সরকারি পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এ সময় তথ্য ও সংবাদ সংগ্রহের কাজে বাধা প্রদান, অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ সাংবাদিক ফজলুল হককে লাঞ্ছিত করেন অবৈধ দখলবাজ চিহ্নিত ভূমি দস্যু উপজেলার বাজার গ্রাম এলাকার মৃত ইয়াসিন আলীর ছেলে সোলায়মান মামুন, মথুরেশপর ইউনিয়নের ছনকা গ্রামের মৃত আব্দুর রহিমের ছেলে শেখ লুৎফর রহমান, শিমুল হোসেন, শেখ লাভলু, সহ তাদের ভাড়াটিয়া লোকজন।

সরজমিনে উপস্থিত হয়ে জানা গেছে কালিগঞ্জ উপজেলার ০৯নং মথুরেশপুর ইউনিয়নের শীতলপুর (বড়) মৌজায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় আইন অমান্য করে বর্তমান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় সংলগ্ন প্রধান গেটের পাশেই অবৈধ জবরদখল কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে ভূমিদস্যু বিএনপি’র নেতা লুৎফর গ্যাং।
উল্লেখ থাকে যে ২০০১ সালে বিএনপি জামায়াত ঐক্য জোট ক্ষমতায় আসলে তৎকালীন সরকারি টিআর কাবিখা বরাদ্দকৃত অর্থের বিনিময়ে জামাত-বিএনপির অফিস তৈরি করার চেষ্টা করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের সামনে মূল ফটকের পূর্ব পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় এই বিএনপি নেতা শেখ লুৎফর রহমানের নামে প্রকল্পে। বিষয়টি নিয়ে তৎকালীন পত্র পত্রিকায় খবর ছাপা হলে অবৈধ নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে যায়।

প্রসঙ্গত, উপজেলা পরিষদ চত্বরে ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নাকের ডগায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের সরকারি জায়গায় বিএনপির নেতা লুৎফর রহমান অবৈধ দখলবাজের কবল থেকে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করতে এসে জনরোসে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা কার্যক্রম বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়

ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বেলা সাড়ে ১০ টার সময় সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসের সামনে প্রধান ফটকের পূর্ব পাশের রাস্তার পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায়। উপজেলার ছনকা গ্রামের মৃত শেখ আব্দুর রহিমের পুত্র শেখ লুৎফর রহমান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিস সংলগ্ন পূর্ব পাশে রাস্তার পাশে পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় অবৈধ ভাবে দখল করে দোকানদার নির্মাণ চেষ্টা চালিয়ে আসছে। গত রবিবার (১৭ মার্চ) সকালে পুনরায় নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাওয়ার সময় তার প্রতিপক্ষ খান নূর মোস্তফা প্রথমে কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট অভিযোগ করেন পরবর্তী সময়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডে খবর দেয়। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বিভাগীয় উপ-সহকারী প্রকৌশলী শুভেন্দু বিশ্বাস, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের সার্ভেয়ার আহসানুল হক, কালিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী তন্ময় হালদার ও সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসে সার্ভেয়ার মোঃ মিরাজ হোসেন সহ সাতক্ষীরা এবং কালিগঞ্জ সমন্বয়ে পানি উন্নয়নের বোর্ডের একটি টিম ঘটনাস্থলে আসে।

এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দিপংকর দাসের নির্দেশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম শুরু করে। খবর পেয়ে পাশের অন্যান্য অবৈধ দখলে থাকা স্থাপনা মালিকরা একত্রিত, ও চরম উত্তেজিত হয়ে উচ্ছেদ কার্যক্রমে বাধা দেয়। তারা দাবি করতে থাকে একে একে উক্ত স্থানে যত অবৈধ স্থাপনা আছে সেগুলো আগে উচ্ছেদ করে তারপর এই কার্যক্রমে হাত দিতে হবে ।তা না হলে উচ্ছেদ কার্যক্রম করতে দেওয়া হবে না বলে প্রতিবাদ করতে থাকে।

পরে ১ ঘন্টা ব্যাপী সময় অতিবাহিত করে অবৈধ উচ্ছেদ কার্যক্রম চালিয়ে জনরোসে পরবর্তীতে পুনরায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম বন্ধ করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা দ্রুত উক্তঘটনা স্থান ত্যাগ করে চলে যায়।এ বিষয় কালিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপসহকারী প্রকৌশলী কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে উচ্ছেদ অভিযান বন্ধ করা হয়েছে। পরবর্তীতে নির্দেশ পেলে পুনরায় অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে বলে জানা যায়।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪