ঢাকা   ২৫শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ । ১২ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

“পাবনার সাঁথিয়ায় পৈশাচিক গনধর্ষন” পাবনা র‍্যাবের পৃথক অভিযানে (০৩ জন) গ্রেফতার

প্রতিবেদকের নাম
  • প্রকাশিত : বুধবার, মার্চ ২০, ২০২৪
  • 38 শেয়ার

পাবনা প্রতিনিধি: আব্দুল্লাহ আল মোমিন,

র‍্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই সন্ত্রাসী, খুনি, ছিনতাইকারী, অপহরণকারী ও ধর্ষণ, প্রতারকদের গ্রেফতার করে দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সদা তৎপর রয়েছে।

গত ১৯ শে ফ্রেবুয়ারি ২০২৪ খ্রিঃ, সন্ধ্যা আনুমানিক ৬.১৫ ঘটিকায় ধর্ষনের শিকার ২৬ বছর বয়সী ভিকটিম সাঁথিয়া থানার বনগ্রাম বাজার হতে নিজ বাড়িতে যাবার উদ্দেশ্যে অটোতে করে রওনা করেন এবং একই থানার চরভদ্রকোলা নামক স্থানে অটো হতে নামেন। সেখান থেকে পায়ে হেঁটে নিজবাড়ীর উদ্দেশ্যে যাবার সময় বটতলা নামক স্থানে আসা মাত্রই রাস্তায় ভিকটিমকে একা পেয়ে পেছন থেকে ১ জন ব্যক্তি ভিকটিমের মুখ চেপে ধরে অপর ২ জন ব্যক্তি গামছা দিয়ে ভিকটিমের পা বেঁধে চরভদ্রকোলা গ্রামের ডাঙ্গার চক নামক নির্জন মাঠে জনৈক ইদ্রিস আলী(৫৫), পিতা-মোঃ ইব্রাহিম প্রামাণিকের পটলের জমিতে নিয়ে যায়।

অতঃপর মুখে কাপড় গুঁজে দিয়ে পা বাঁধা অবস্থায় চলে পৈশাচিক নির্যাতন। পালাক্রমে দলবদ্ধভাবে আসামী নাসির উদ্দিন (৩০), পিতা- মোঃ আব্দুর রহমান, আসামী মোঃনুহ মোল্লা (২৮), পিতা-মোঃনুর ইসলাম এবং সর্বশেষে আসামী মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩২),পিতা- মোঃ নুর আলী দলবদ্ধ ভাবে ভিকটিমকে ধর্ষন করে। ধর্ষনকারী ০৩ আসামী প্রত্যেকেই সাঁথিয়া থানার চাঁদপুর এলাকার বাসিন্দা। পৈশাচিক এই ঘটনার এক পর্যায়ে ভিকটিম জ্ঞান হারালে ভিকটিমকে রক্তাক্ত অবস্থায় সেখানে রেখেই পালিয়ে যায় ধর্ষকেরা। পরবর্তীতে রাত্রী অনুমান ১০.০০ ঘটিকায় ভিকটিমের জ্ঞান ফিরলে তিনি নিজের বাড়িতে আসেন এবং স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা গ্রহন করেন। পরবর্তীতে উক্ত ঘটনায় ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে পাবনা জেলার সাঁথিয়া থানায় ২২-০২-২৪ খ্রিঃ তারিখে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ এর ৩ ধারায় গনধর্ষনের মামলা দায়ের করেন।

উক্ত গণধর্ষণের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় আসামী গ্রেফতারে অভিযানে নামে সিপিসি-২, পাবনার একটি চৌকষ আভিযানিক দল। কোম্পানি কমান্ডার মেজর মোঃ এহতেশামুল হক খান এর নেতৃত্বে র‍্যাবের আভিযানিক দলটি গোপন সংবাদ এবং তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় গত ১৯-০৩-২০২৪ খ্রিঃ তারিখ ২১.৩০ ঘটিকায় পাবনা জেলার সাঁথিয়া থানাধীন খাইলভরা মোল্লাবাড়ি এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে উক্ত গণধর্ষণ মামলার এজাহার নামীয় ০১ নং আসামী ধর্ষক মোঃ নূহ মোল্লা (২৮), পিতা-মোঃ নুর ইসলাম কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।গ্রেফতারকৃত গণধর্ষণ মামলার আসামী ধর্ষক মোঃ নূহ মোল্লার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে পরবর্তীতে আভিযানিক দলটি একই তারিখ ২৩.৫৫ ঘটিকায় পাবনা জেলার আতাইকুলা থানাধীন ধর্মগ্রাম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে অপর দুইজন ধর্ষক এজাহারনামীয় ০২ নং পলাতক আসামী মোঃ নাসির উদ্দিন (৩০), পিতা-মোঃ আব্দুর রহমান এবং ০৩ নং আসামী মোঃ সাইফুল ইসলাম (৩২), পিতা-মোঃ নূর আলী, উভয় সাং-চাঁদপুর, থানা-সাঁথিয়া, জেলা-পাবনাদ্বয়কে গ্রেফতার করে।

এ সম্পর্কিত আরো সংবাদ
© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০২৪